রবিবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২০
Home > আন্তর্জাতিক > আপনার নাম মুখে নিতে লজ্জা লাগে: মমতা

আপনার নাম মুখে নিতে লজ্জা লাগে: মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥
পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। রাজ্যের বিজেপির এই শীর্ষ নেতার নাম মুখে নিতে লজ্জা লাগে বলে মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

সোমবার ধর্মতলায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধরনায় হাজির হয়ে এই মন্তব্য করেন তিনি।

মমতা বলেন, আপনার নাম বলতে লজ্জা লাগে। নেতা হয়ে গুলি করার কথা বলেন! আপনি বলছেন গুলি করে মারতে। এটাই তো চাইছেন, কিছু হলে কিন্তু দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে না।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়েও বিজেপি সরকারের কড়া সমালোচনা করেন মমতা। তিনি বাম-কংগ্রেসকেও ছেড়ে কথা বলেননি।

মমতা বলেন, বিজেপির সঙ্গে বাম-কংগ্রেসের কোনো পার্থক্য নেই। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে আমরা একাই আন্দোলন করব। একাই পথে নামব।

মোদি বিরোধীদের রাজপথে নামার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, যে যেখানে শক্তিশালী সেখানে রাস্তায় নামুন। পশ্চিমবঙ্গে আমরা আন্দোলনে আছি, আন্দোলন চলবে।আমার বাম-কংগ্রেসকে প্রয়োজন নেই।

রোববার পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ রানাঘাটে সিএএ বিরোধীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, প্রয়োজনে তাদের শেষ করে দিতে হবে। তিনি বলেন, যারা সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করছে তাদের কর্ণাটক, উত্তরপ্রদেশ, আসামের মত গুলি করে মারা হবে। তার এই বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়েছে ভারতজুড়ে।

তার এই বক্তব্যের জবাবে মমতা বলেন, কিছু হলে এর দায় বিজেপি নেতাকেই নিতে হবে।

আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কিছু মানুষ শুধু সংবাদমাধ্যমে নাম তোলার জন্য সিএএ বিরোধী আন্দোলনে হিংসা ছড়াচ্ছে। বাস-ট্রেনে আগুন জ্বালাচ্ছে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যদের হিংসা থেকে দূরে থেকে মানুষের হয়ে কাজ করার পরামর্শ দেন মমতা।

প্রসঙ্গত, মুসলিম বিদ্বেষী নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে ভারতের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিক্ষোভ চলছে। দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর রাতের আধারে হামলা হয়েছে। জামেয়া মিলিয়ায় হামলার পর সম্প্রতি জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়েও বিক্ষুব্ধদের ওপর হামলা হয়েছে। এতে ছাত্র-শিক্ষক মিলিয়ে আহত হয়েছেন অন্তত ৪২ জন।