রবিবার, জুলাই ২১, ২০১৯
Home > আন্তর্জাতিক > ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে দেখে নেয়ার হুমকি জন বোল্টনের

ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে দেখে নেয়ার হুমকি জন বোল্টনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥
ইরানের পরমাণু সমঝোতাকে একটি খারাপ চুক্তি আখ্যা দিয়ে তা শেষ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। পাশাপাশি ইরানের সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়ার পেছনে তাকে দায়ী করে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাভেদ জারিফের সমালোচনার কড়া জবাবও দিয়েছেন তিনি।

বুধবার এক টুইটে জন বোল্টন বলেন, একটি খারাপ চুক্তিকে কীভাবে শেষ করে দিতে হয়, আমি একদিন তাকে সে ব্যাখ্যা দেব।

এর আগে মঙ্গলবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ এক টুইটবার্তায় বলেন, জন বোল্টন ও ইহুদিবাদী ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ২০০৫ সালে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে তিন ইউরোপীয় দেশের সঙ্গে ইরানের পরমাণু চুক্তিকে ধ্বংস করে দিয়েছিলেন।

ইরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে তারা এ কাজ করেছিলেন বলে দাবি করেন তিনি।

বোল্টন ও নেতানিয়াহুর ওই পদক্ষেপের কারণে ইরান ২০১২ সাল থেকে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রা ১০০ গুণ বৃদ্ধি করেছে বলে জানান দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

জাভেদ জারিফ আরও বলেন, এবারও এ দুই ব্যক্তি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ধোঁকা দিয়ে গোটা বিশ্বের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে ধ্বংস করেছে।

প্রসঙ্গত পরমাণু কর্মসূচি হ্রাস করার বিনিময়ে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে- এই শর্তে ২০১৫ সালে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী ৫ সদস্য ও জার্মানির সঙ্গে ইরান ‘জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন’ (জেসিপিওএ) নামের চুক্তিতে সই করে ইরান।

শুরু থেকেই চুক্তির প্রতিটি শর্তই মেনে আসছে তেহরান। এর পরও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর অভিযোগ এনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ২০১৮ সালের মে মাসে ওই সমঝোতা থেকে বেআইনি ও একতরফাভাবে আমেরিকাকে বের করে নেন। সেই সঙ্গে ২০১৫ সালে তুলে নেয়া সব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।