বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
Home > সারাদেশ > গাজীপুরে প্রকাশ্যে কিশোরকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা

গাজীপুরে প্রকাশ্যে কিশোরকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥
গাজীপুরে প্রকাশ্যে নিরপরাধ এক কিশোরকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার বিকেলে মহানগরীর রাজদীঘির উত্তর পাড়ে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত নুরুল ইসলাম (১৪), স্থানীয় পাখি বিক্রেতা ফকির আলীর ছেলে। তারা স্বপরিবারে উত্তর রাজবাড়ি এলাকার ফরিদ আলীর বাড়ির ভাড়াটে। তাদের গ্রামের বাড়ি শেরপুর জেলার শ্রীবর্দী থানার ভায়াডাঙ্গা (ভাগাতা) গ্রামে।

নিহতের বড় ভাই রাজন জানায়, জয়দেবপুর এলাকার সাহাপাড়ার কিশোর রানা (১২) রাজদীঘির উত্তর পারে দাঁড়িয়ে ধুমপান করছিলো। এ সময় স্থানীয় যুবক সাজন (১৭) রানাকে শাসায়। এতে রানা ক্ষিপ্ত হয়ে তার এলাকার উঠতি বয়সের কয়েকজন কিশোরকে নিয়ে সাজনকে মারার উদ্দেশ্যে ওই স্থানে আসে। এ সময় সাজন এবং নিহত নুরুল ইসলাম দাঁড়িয়ে কথা বলছিল। কয়েকজন কিশোর চাপাতি হাতে তাদের দিকে তেরে আসছে দেখে তারা দৌঁড় দেয়। দৌঁড়ে ঘটনা স্থল থকে একটু দূরে সাজন এক বাড়িতে ঢুকে একটি কক্ষের ভেতরে দরজা বন্ধ করে দেয়। হামলাকারীরা ওই কক্ষের দরজা-জানালা চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে কাটার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। কিন্তু নিরপরাধ নুরুল ইসলাম পালানো সময় রাজদিঘীতে লাফিয়ে পড়ে। হামলাকারীরা নুরুকে পানি থেকে তুলে চাপাতি দিয়ে উপর্যুপরি কোপায়। এক পর্যায়ে এলাকাবাসী এগিয়ে গেলে তারা পালিয়ে যায়। পরে নুরুকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানার এসআই লিয়াকত আলী জানান, নিহত কিশোর নুরুল ইসলাম শহরে ফেরি করে চা বিক্রি করতো। মঙ্গলবার দুপুরের খাবারের পর নুরুল ইসলাম বিকেল তিনটার দিকে বাড়ির পাশে রাজদিঘীরপাড়ে যায়। এ সময় ৪/৫জন কিশোর চাপাতি নিয়ে তার উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা তাকে চাপাতি দিয়ে পিঠে উপর্যুপরি কুপিয়ে পালিয়ে যায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: এজাজ শফি জানান, এলাকার কিশোরদের মধ্যে সিনিয়র-জুনিয়রিটি নিয়ে বিরোধের জেরে ওই খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে তথ্য পাওয়া গেছে।

তবে কারা এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্যে লাশ মর্গে রয়েছে।