বুধবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৯
Home > ভ্যারাইটিজ > গাজীপুরে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও নির্যাতনের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

গাজীপুরে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ ও নির্যাতনের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

মাহমুদা আফরোজ লিজা
স্টাফ রিপোর্টার ॥
গাজীপুর: আত্মীয়তার সুবাদে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বিগত ১৬ মাস যাবৎ এক তরুণীকে (২৪) ধর্ষণ ও নির্যাতন করেছে গাজীপুর মহানগরের ভূরুলিয়া তালুকদার পাড়া এলাকার সফিউল আলম ফিরোজের পুত্র আবু সাইদ (৩৫)। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ওই তরুণী বাদী হয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানায় মামলা {নং-৫৮(৯)১৯} দায়ের করেছে। পুলিশ অভিযুক্তকারীকে গ্রেফতার করেছে।

জানা যায়, গত বছরের ১ জুন আত্মীয়তার সুবাদে ওই তরুণীকে ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানার উড়াহাটি এলাকা থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে আবু সাইদ। ওইদিন দিবাগত রাত থেকে ওই তরুণীকে আবু সাইদের শয়ন কক্ষে দৈহিক মিলন শুরু করে। একই ভাবে প্রতিদিন রাত পরস্পরে দৈহিক মিলন ঘটাতে থাকে। দিন যতই যাচ্ছে ততই বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছে আবু সাইদ ও তার পরিবারকে। কিন্তু আবু সাইদ ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করছে। টাকা ছাড়া বিয়ে করবে না। এ দিকে তরুণীর পরিবার এতো টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করছে। তাতে ওই তরুণীর উপর নির্যাতন বেড়ে যায় এবং তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে দৈহিক মিলন ঘটাতে থাকে।
এ বিষয়ে ওই তরুণীর সাথে মোবাইল ফোনে কথা হয়। তিনি জানান, যেহেতু আত্মীয়তার দাবিতে আমাকে বিয়ের প্রস্তাব করে আবু সাইদ তার বাড়িতে নিয়ে আসে। আমি তার হব স্ত্রী হয়ে তার বাড়িতে অবস্থান করি। বিয়ে করে সংসার করবো স্বপ্ন দেখছি কিন্তু দিন যতই যাচ্ছে আমাকে বিয়ে এবং নিকাহ রেজিস্ট্রি ছাড়া দিনের পর দিন ভোগ করছে। এ সব বিষয়ে প্রতিবাদ করলে বাড়ির সকলেই আমার উপর নির্যাতন চালাতো।

এ ব্যাপারে ওই তরুণীর আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যক্তিদের জানালেও আপোষ মিমাংসায় ব্যর্থ হয়ে ন্যায় বিচার চেয়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়।
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো: আনোয়ার হোসেন বলেন, ওই মেয়েটির মেডিকেল পরীক্ষা-নীরিক্ষা করানো হয়েছে এবং অভিযোগের ভিত্তিতে আবু সাইদকে গ্রেফতার করা হয়েছে।