বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
Home > শীর্ষ খবর > ঘোড়াশাল বাজারে ৫টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি, স্বর্ণ ও টাকা লুট

ঘোড়াশাল বাজারে ৫টি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি, স্বর্ণ ও টাকা লুট

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি ॥
নরসিংদী: পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল বাজারে ৪টি স্বর্ণের দোকানসহ ১টি চাউলের দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার দিবাগত রাত ১টা থেকে ৪টার মধ্যে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, রাত ১টার দিকে ঘোড়াশাল বাজারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী (ডিবি পুলিশ) পরিচয় দিয়ে ৩টি স্পিড বোর্ড করে ২৫ থেকে ৩০ জনের ডাকাত দল হানা দেয়। এসময় বাজারের নাইট গার্ডসহ ১২ জন দোকানির হাত পা বেঁধে পাশের একটি দোকানে নিয়ে আটকে রাখে।

বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, ডাকাতদলের সদস্যরা মা শিল্পালয়, মল্লিক শিল্পালয়, মুসলিম জুয়েলার্স, জনতা গহণালয় ও প্রিয় জুয়েলার্সের ৫টি স্বর্ণের দোকানে লুটপাট চালায়। সাথে ফারুক এন্ড ব্রাদার্সের চাউলের দোকান ভাংচুর করে। পরে তারা প্রায় ৪ ঘন্টা ডাকাতি শেষে স্পিডবোর্ড যোগে নদী পথে পালিয়ে যায়। স্বর্ণের দোকানে থাকা দুই জন কর্মচারী ডাকাত দলের হামলায় আহত হয়েছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এসময় নরসিংদী পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার বলেন, ডাকাত দল নৌপথে স্পিড বোর্ডে এসে নৈশপ্রহরীদের আটক করে ৫টি স্বর্ণের দোকানে হিট করে। ২টি দোকানে কর্মচারী ছিল। ৩টি দোকানের ভল্ট ভেঙ্গে ৮০ থেকে ৯০ ভরি স্বর্ণ, ২’শ থেকে সাড়ে ৩’শ ভরি (আরো কম বেশি হতে) রুপা ও আনুমানিক ১৫ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে আবার নদী পথে পালিয়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে আমরা ধারণা করছি। সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্র এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই। এই এলাকায় এমন ঘটনা অতীতে ঘটে নাই। যারা এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকুক ডাকাত চক্রকে আমরা ধরতে সক্ষম হবো। আমরা তাদের ধরতে ইতিমধ্যে কাজে নেমেছি।

এ ঘটনার পর সকালে নরসিংদী পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসির উদ্দিন, ওসি তদন্ত মোঃ গোলাম মোস্তফা, জেলা ডিবি পুলিশ ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য বিভাগের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন।