রবিবার, ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
Home > রাজনীতি > স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কে এই নির্মল গুহ?

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কে এই নির্মল গুহ?

বাংলাভূমি ডেস্ক ॥
জাতীয় সম্মেলনের মধ্য দিয়ে নতুন নেতৃত্ব পেল স্বেচ্ছাসেবক লীগ। প্রায় সাত বছর পর অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আওয়ামী লীগের অন্যতম এই সহযোগী সংগঠনের সভাপতি মনোনীত হয়েছেন নির্মল রঞ্জন গুহ, আর সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু। তারা দুজনই আগের কমিটির সহসভাপতি পদে ছিলেন। তাদের ওপরই দায়িত্ব বর্তেছে পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করার।

শনিবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই শীর্ষ নেতার নাম ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ক্যাসিনোকাণ্ডে সংগঠনের গায়ে দাগ লাগার পর কলঙ্কিতদের বাইরে রেখে নতুন নেতৃত্ব পেল স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

ক্যাসিনোকাণ্ডে নাম আসা আগের কমিটির সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কায়সারের পাশাপাশি নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের অভিযোগে সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথও ছিটকে পড়েছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ থেকে। সাত বছর ধরে তারা সংগঠনটির নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন।

গতকাল কমিটি ঘোষণার সময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে ৬ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১২ জনের নাম প্রস্তাব করা হয়। এই প্রার্থীদের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং মহানগর উত্তর-দক্ষিণের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করার নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা আশা করি, সবাই নেত্রীর সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন। পরে তিনি নতুন নেতাদের নাম ঘোষণা করেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের নতুন সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহসভাপতি পদে ছিলেন। মোল্লা কাওছারকে অব্যাহতি দেয়ার পর নির্মল সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক হন। তিনি সফলতার সঙ্গে এ দায়িত্বও পালন করেন।

ছাত্রলীগের হাত ধরে রাজনীতিতে পথচলা নির্মল রঞ্জন গুহের। ছাত্রজীবনে তিনি নয়াবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, সরকারি দেবেন্দ্র কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।

নির্মল গুহ পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। তিনি ঢাকা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেন।

মোল্লা কাওছার ও পঙ্কজ দেবনাথের কমিটির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি পদে ছিলেন নির্মল। দীর্ঘদিন ধরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের রাজনীতি করে আসা এই নেতার ওপর আস্থা রাখল আওয়ামী লীগ।

সভাপতি হিসেবে নাম ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন, সেই দায়িত্ব আমি অক্ষরে অক্ষরে পালন করব। সারা দেশে স্বেচ্ছাসেবক লীগকে সুসংগঠিত রাখব।

১৯৯৭ সালে তৎকালীন সংসদ সদস্য মকবুল হোসেনকে আহ্বায়ক করে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রথম কমিটি হয়। পরে ২০০২ সালে প্রথম কাউন্সিলে সভাপতি নির্বাচিত হন বাহাউদ্দিন নাছিম, সাধারণ সম্পাদক হন পঙ্কজ দেবনাথ।

এর পর ২০১২ সালে মোল্লা মো. আবু কাওছারকে সভাপতি এবং পঙ্কজ দেবনাথকে সাধারণ সম্পাদক করে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি হয়েছিল। প্রায় সাত বছর তারা সংগঠনটির নেতৃত্ব দেন।

এরই মধ্যে ক্যাসিনোকাণ্ডে নাম আসায় আগের কমিটির সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছারের পাশাপাশি সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথকেও সম্মেলনের আগে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল।